Freelancer Hridoy
ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল পর্ব ৪

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল পর্ব ৪

আজকের ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়ালে Comment এবং Appearance এই দুইটা অপশন নিয়ে কথা বলব।

গত ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল গুলো যদি আপনি না পড়ে থাকেন তো এই লিংক থেকে পড়ে নিন।

 

Pages অপশনের পর আছে Comment এই অপশন টা।
তার মানে আমাদের আজকের আলোচনার বিষয় হলো Comment এই অপশন নিয়ে।

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল পর্ব ৪

1.Comment

একটা ওয়েবসাইটে কতগুলো কমেন্ট করা হলো তার যাবতীয় লিস্ট এখানে থাকবে।

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল

এখানে থেকে ওয়েবসাইটের যত কমেন্ট আছে সব Edit,Approve,Trash করা যায়।

Comment অপশনে ক্লিক করলে এরকম একটা পেজ আসবে।

এখানে আপনি সকল কমেন্ট দেখতে পারবেন।

এখান থেকে আপনি যেকোনো Pending থাকা কমেন্ট Approve বা Trash করে দিতে পারবেন।

আসলে কমেন্ট সেকশন টি খু্ ছোট এখানে বলার কিছুই নেই।তাই আমরা চলে যাচ্ছি পরবর্তী অপশনে।
এখন আমরা Appearance নিয়ে আলোচনা করব।

2.Appearance

একটা ওয়েবসাইটের থিম,প্লাগিন এই বিষয়গুলো থাকে এই অপশনেন ভিতর।

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল

Appearance এ ক্লিক করলে
1.Themes
2.customize
3.menus
4.widgets
5.header
6.background
7.install plugins
8.theme editor

এই অপশনগুলো দেখতে পাব।
আমরা প্রথমে Themes এর ভিতরে যাব।
Themes এ ক্লিক করলে ওয়েবসাইটে যত থিম আছে সেগুলো দেখতে পারব।

এবার যেকোনো একটা থিম Active করে দিলেই সেটা ওয়েবসাইটে চালু হয়ে যাবে।

Theme Upload সম্পর্কে আগেই পোস্ট করা হয়েছে।
নিচের লিংক থেকে পড়ে নিন

WordPress Theme Install করার নিয়ম

Themes এর পরের অপশন টি হলো Customization এই অপশন থেকে কোডিং করা ছাড়াই ওয়েবসাইট কাস্টমাইজ করা যায়।

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল

Customization এই অপশনে গেলে এরকম কিছু অপশন দেখতে পারবেন যেমন
Site identity
Home page General settings
Theme Option

এরকম অপশন দেখতে পারবেন।
বিভন্ন থিমের জন্য অপশন গুলো একটা আরেকটার ভিতরে থাকতে পারর সেটা কোন সমস্যা নয়।

বামপাশে কিছু এরকম অপশন থাকে এই অপশন থেকে যা কিছু Edit করা হবে তা ডান দিকে লাইভ দেখা যাবে।

লাইভ Edit করার জন্য এটা খুব ভালো একটা অপশন।
এছাড়া ডানপাশে দেখবেন যে এরকম Edit করার Option দেওয়া আছে।
ওখানে ক্লিক করলে সরাসরি Edit করা যাবে।
যা Edit করা হবে লাইভ দেখা যাবে।

তবে যা যা Edit করা হবে সেটা যদি Publish না করা হয় তবে কিন্ত আপনার Edit করা সবকিছু Save হবেনা।
তাই সব কাজ করার পর অবশ্যই Publish করতে হবে।

আমারা এবার Site Identity নিয়ে আলোচনা করব।

Site identity মানে হলো ওয়েবসাইটের পরিচিতি।
এখানে ওয়েবসাইটের পরিচিতি লেখা থাকে।

Site identity এই অপশনের ভিতরর গেলে প্রথমেই দেখা যাবে
Site Title মানে এখানে ওয়েবসাইটের টাইটেল দেয়া থাকবে।

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল
যেমন আমার ওয়েবসাইটের নাম freelancerhridoy.com তাই এখানে টাইটেল হিসেবে থাকবে শুধু Freelancer Hridoyএছাড়া আপনি যা খুশি দিতে পারেন।
তবে ডোমেইনের নাম দেওয়াই সব থেকে ভালো।

ওয়ার্ডপ্রেস ড্যাশবোর্ড টিউটোরিয়াল

এবার নিচে দেখবেন যে Tag line লিখা আছে,
Tag line মানে হলো ওয়েবসাইটের Description তাই এখানে আপনার ওয়েবসাইট কি সম্পর্কে সেটার একটা ছোট বর্ননা লিখতে হবে।
তবে সেটা সর্বোচ্চ 156 শব্দ হতে পারে।
কারন এর থেকে বড় Tag line মানে মেটা ডিসক্রিপশন দিলে এসইও করার সময় সমস্যায় পড়তে হয়।

তারপর যে অপশন টি আছে সেটা হলো Site icon এটার মানে হলো যখন ওয়েবসাইট ভিজিট করা হয় তখন বাম পাশে একটা আইকন দেখা যায়।
আর ওটাই হলো Site Icon

 

সাইট আইকন add করতে চাইলে এখানে ক্লিক করে সাইট আইকন সিলেক্ট করে নিন।
তবে সাইটের আইকনের রেজুল্যেশেন কিন্তু 512*512 হতে হবে বা এর কম।

আজকে এ পর্যন্তই থাক।
পরবর্তী টিউটোরিয়ালে Customization এর বাকি অপশন গুলো নিয়ে আলোচনা করা হবে।

আজকের টিউটোরিয়াল টি কেমন লেগেছে কমেন্ট করে জানান।
ওয়ার্ডপ্রেস সম্পর্কে ধারাবাহিক টিউটোরিয়াল পোস্ট করা হয়েছে আমাদের টিউটোরিয়াল নিচের লিংক থেকে পড়ে নিন।

 

Freelancer Hridoy

Freelancer Hridoy

Add comment

Most popular

Most discussed